• সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ০১:৩২ পূর্বাহ্ন

দুদকের মামলায় ডোমার পৌর মেয়র কারাগারে, অভিযোগ অর্থ আত্মসাৎ

একেনিউজ ডেস্ক ॥ / ১৭১ Time View
প্রকাশিত : সোমবার, ১০ অক্টোবর, ২০২২

৫৪ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দুদকের মামলায় নীলফামারীর ডোমার পৌরসভার মেয়র মনছুরুল ইসলাম দানুকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। মামলা দায়েরের পর ছয় সপ্তাহের উচ্চ আদালতের জামিন শেষে সোমবার দুপুরে নীলফামারী জজ আদালতের বিশেষ জজ মো. মাহমুদুল করিমের আদালতে হাজির হয়ে জামিন প্রার্থনা করেন তিনি। বিচাকর তাঁর জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠোনোর নির্দেশ দেন।

সূত্র মতে, দুদক রংপুর সমন্বিত কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. হোসাইন শরীফ গত ২৩ আগস্ট বাদী হয়ে জেলার ডোমার পৌরসভার মেয়র মনছুরুল ইসলাম দানুর বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন আইনে মামলাটি দায়ের করেন।

মামলায় নীলফামারী অগ্রণী ব্যাংক শাখার সাবেক ম্যানেজার রথিন্দ্র নাথ সরকারসহ আরো দুজনকে আসামি করা হয়।
মামলায় অভিযোগ করা হয়, ডোমার পৌরসভার মেয়র মনছুরুল ইসলাম দানু শাওন অটো ব্রিকস লিমিটেডের নামে অগ্রণী ব্যাংক নীলফামারী শাখা থেকে ২০১৪ সালে ১৫ কোটি ৭৫ লাখ টাকা ঋণ নেন। সে সময় ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপক রথিন্দ্র নাথ সরকার ও সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তা শফিকুল ইসলামের যোগসাজশে নিয়ম ভেঙে একসঙ্গে সমুদয় টাকা উত্তোলন করেন। ২০২২ সালের ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত মেয়র মনছুরুল ইসলাম দানু সুদে-আসলে ২৩ কোটি ৩৪ লাখ টাকার ক্ষতি সাধন করেছেন। অপরদিকে মেয়র দানু ২০১৬ সালে ব্রিকস ফিল্ডের জন্য এলসির মাধ্যমে বিদেশ থেকে যন্ত্রপাতি আমদানি করেও অগ্রণী ব্যাংকের কর্মকর্তাদের যোগসাজশে বন্দর থেকে মালামাল উত্তোলন করেননি। এতে বন্দর কর্তৃপক্ষের পাওনা দাঁড়িয়েছে ৩১ কোটি ১০ লাখ টাকা। ব্যাংকঋণ এবং বন্দর কর্তৃপক্ষের পাওনাসহ মোট ৫৪ কোটি ৩৪ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ করা হয় দুদকের ওই মামলায়।

এ বিষয়ে আসামিপক্ষের আইনজীবী আবু মোহাম্মদ সোয়েম বলেন, ‘পৌর মেয়র মনছুরুল ইসলাম দানু তাঁর একটি অটো ভাটার যন্ত্রপাতি বিদেশ থেকে আনার জন্য অগ্রণী ব্যাংক থেকে ঋণ নেন। তিনি যন্ত্রপাতি পোর্ট থেকে কিছু উত্তোলন করে অর্থ সংকটে অবশিষ্ট যন্ত্রপাতি উত্তোলন করতে পারেননি। এ বিষয়ে ব্যাাংকের ঋণ পরিশোধে গত ১৬ আগস্ট অগ্রণী ব্যাংক নীলফামারী শাখার সঙ্গে তাঁর একটি সমঝোতা হয়। এরই মধ্যে গত ২৩ আগস্ট রংপুর দুদক তাঁর বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করে। মামলায় উচ্চ আদালত থেকে ছয় সপ্তাহের জামিনে থেকে সোমবার নীলফামারীর বিশেষ আদালতে আত্মসমর্পণ করলে বিজ্ঞ বিচারক তাঁর জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এ বিষয়ে আমরা উচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হব। ’

সরকারপক্ষের আইনজীবী মো. কামরুজ্জামান শাসন বলেন, ‘ডোমার পৌরসভার মেয়র মনছুরুল ইসলাম দানু তাঁর ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের জন্য অগ্রণী ব্যাংক নীলফামারী শাখা থেকে যে ঋণ নিয়েছিলেন সেটাকে যেভাবে ব্যবহার করার কথা তা তিনি করেননি। এ বিষয়ে দুদক তাঁর বিরুদ্ধে মামলা করেছে। এ মামলায় তিনি হাইকোর্ট থেকে ছয় সপ্তাহের জামিন নেন। হাইকোর্ট নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিলে আজ আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইলে আমরা আপত্তি জানাই। ন্যায়বিচারের স্বার্থে আদালতের বিচারক তাঁকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এই মামলা তদন্তাধীন আছে। তদন্তে প্রকৃত ঘটনা উদঘাটন হবে। ’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

Like Us On Facebook

Facebook Pagelike Widget