• বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০২৩, ০৮:১৪ পূর্বাহ্ন

ফেনী বড় মসজিদ মাদ্রাসার শিশু শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে কানের পর্দা ফাটিয়ে দিয়েছে শিক্ষক আব্দুল্লাহ আল ওয়াফি

আব্দুল্লাহ আল মামুন ( জুয়েল )
Update : রবিবার, ৩০ জুলাই, ২০২৩

ফেনীর বড় মসজিদ হেফজ খানা মাদ্রাসার শিশুশিক্ষার্থীকে হাত দিয়ে কানে থাপ্পর মেরে কানের পর্দা ফাটিয়ে দিয়েছে বড় মসজিদ হেফজ খানা মাদ্রাসার শিক্ষক এ নির্মম নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে বড় মসজিদ মাদ্রাসার শিক্ষক আব্দুল্লাহ আল ওয়াফির বিরুদ্ধে।

গত ২৫ তারিখ দুপুর অনুমান ১২ঃ০০ ঘটিকার সময় মাদ্রাসা পড়ায় অবস্থায় হুজুরকে পড়া দেওয়ার সময় ভুল হওয়ার কারণে ছয়টা থাপ্পড় গালের মধ্যে দিয়ে এরপর প্লাস্টিকের রেল দিয়ে পায়ের মধ্যে আঘাত করতে থাকে। এরপর ছেলেকে উদ্ধার করে আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসা করে,২৭ তারিখে ফেনী মডেল থানায় অভিযোগ দিয়ে থাকি।

অভিযোগ ও ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর বাবা জানান, আমার ছেলে আবু ইয়াসির বড় মসজিদ হেফজ বিভাগে আজকে দেড় বছর যাবত আরবি পড়াশোনা করে আসতেছে, বিবাদী পূর্বে আমার ছেলে পড়া না পারায় একাধিকবার, মারধর করে যার ফলে আমার ছেলে অসুস্থ হয়ে যায়। পরবর্তীতে বিষয়টি মাদ্রাসা বড় শিক্ষক জানানো হয়। কিন্তু তিনি কোন প্রতিকার মূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি।

বিবাদী আব্দুল্লাহ আল ওয়াফি এরপর আরো ক্ষিপ্ত হইয়া, আমার ছেলেকে সহযোরে ছয়টি থাপ্পড় মারে তখন আমার ছেলে কান্না করলে সে আমার ছেলেকে অখ্যাত গালমন্দ করতে থাকে, পরে আমার ছেলে আমাকে ফোন দিয়ে জানায় তারকানে অনেক ব্যথা করতেছে, এই সংবাদ পাইয়া দ্রুত আমি আমার ছেলেকে ফেনী সদর হাসপাতালে চিকিৎসা করাই তখন কর্তব্যরত চিকিৎসক আমাকে জানায় যে আমার ছেলে বাম কানে পর্দা ফেটে গেছে এবং সেই কানে শুনতে পারে না।

আমি উপরোক্ত বিষয় নিয়ে বর্ণিত মাদ্রাসা বড় শিক্ষকের সাথে কথা বলিলে , তিনি আমার কথার কোন ওয়াক্কা করে নাই, এবং উক্ত বিষয় কোন পদক্ষেপ নে নাই এছাড়া উক্ত মাদ্রাসার সম্পূর্ণ ভুবন সিসিটিভি ক্যামেরার দ্বারা নিয়ন্ত্রিত রয়েছে প্রকাশ থাকে যে বর্ণিত বিবাদী মারধরের ফলে আমার ছেলে মারাত্মক আঘাতপ্রাপ্ত হওয়ায় আমার ছেলেকে সাইকা হেলথ কেয়ার সেন্টার হাসপাতাল চিকিৎসা করাই,

নির্যাতিত শিক্ষার্থীর এক সহপাঠী জানায়, অভিযুক্ত শিক্ষক মাদ্রাসার সব শিক্ষার্থীকে বেশির ভাগ সময় নানা অজুহাতে মারধর করেন।

এ বিষয়ে ফেনী মডেল থানার (ওসি) তদন্ত মাহফুজুর রহমান জানান অভিযোগ পেয়েছি আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


More News Of This Category